The price of fuel oil went back 21 years ago

২১ বছর আগে ফিরে গেল জ্বালানি তেলের দাম

২১ বছর আগে ফিরে গেল জ্বালানি তেলের দাম

LIKE OUR FACEBOOK PAGE

২১ বছর আগে ফিরে গেল জ্বালানি তেলের দাম,আন্তর্জাতিক বাজারে অব্যাহতভাবে কমছে জ্বালানি তেলের দাম। আজ সোমবার এ দাম ২১ বছর আগে ফিরে গেল। করোনা মহামারির কারণে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বন্ধ রয়েছে শিল্প কারখানা। এতে চাহিদা ব্যাপকভাবে কমে যাওয়ায় অব্যাহতভাবে কমছে তেলের দাম। এছাড়া শেল তেলের রপ্তানিকারক দেশে যুক্তরাষ্ট্রে মজুদ বেড়েছে যথেষ্ট পরিমাণ।

আজ সোমবার সকালে অগ্রিমবাজারে যুক্তরাষ্ট্রের অশোধিত ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট তেলের দাম ২.৬২ ডলার বা ১৪ শতাংশ কমে হয়েছে প্রতি ব্যারেল ১৫.৬৫ ডলার। একপর্যায়ে দাম আরো কমে যায়, ২১ শতাংশ কমে প্রতি ব্যারেল হয় ১৪.৪৭ ডলার। যা ১৯৯৯ সালের মার্চের পর সর্বনিম্ম দর। এর পাশাপাশি ব্রেন্ট তেলের দাম ২১ সেন্ট বা ০.৮ শতাংশ কমে প্রতি ব্যারেল হয় ২৭.৮৭ ডলার।

বিশ্লেষকরা বলছেন, একসময় জ্বালানি তেলের দাম ১০০ ডলারের ওপরে ছিলো। কিন্তু পরবর্তীতে অর্থনৈতিক মন্দার জেরে দাম কিছুটা কমেছিলো। কিন্তু এখন করোনা মহামারির কারণে বিশ্বজুড়ে শিল্প কারখানা সব বন্ধ। এতে তেলের চাহিদা কমেছে ব্যাপকভাবে। ফলে এখন পানির চেয়েও কম দরে বিক্রি হচ্ছে কালো সোনা। বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের চাহিদা কমেছে ৩০ শতাংশ।

নিয়মিত চাকরির আপডেট পেতে আমাদের গ্রুপে জয়েন করুন

সিডনিতে সিএমসি মার্কেটের প্রধান বিশ্লেষক মিখায়েল ম্যাকার্থি বলেন, ‘তেলের দাম কমার কারণ হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রসহ রপ্তানিকারক অন্যান্য দেশে বিপুল মজুদ থাকলেও বিশ্ববাজারে চাহিদা কমেছে ব্যাপকভাবে।’

সূত্র: রয়টার্স

সামাজিক দূরত্ব মেনে ইসরায়েলে হাজারো মানুষের বিক্ষোভ!

সামাজিক দূরত্ব মেনে ইসরায়েলে হাজারো মানুষের বিক্ষোভ!

প্রাণঘাতী মহামারি করোনাভাইরাস আতঙ্কে কাঁপছে পুরো বিশ্ব। মহামারি এ ভাইরাসে বিশ্বের একমাত্র ইহুদী রাষ্ট্র ইসরায়েলের অবস্থাও বেশ খারাপ। এদিকে এমন আতঙ্কের মাঝেই দেশটিতে প্রায় ৬ ফিট দূরত্ব বজায় রেখে প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহুর বিপক্ষে বিক্ষোভ করেছে প্রায় ২ হাজার মানুষ।

নিয়মিত চাকরির আপডেট পেতে আমাদের গ্রুপে জয়েন করুন

রবিবার (১৯ এপ্রিল) রাজধানী তেল আবিবের রাবিন স্কয়ারে এই বিক্ষোভ সংগঠিত হয়। বিক্ষোভকারীরা বলেন, নেতানিয়াহু এবং তার প্রতিদ্বন্দী বেনি গ্যান্টজ ইসরায়েলের গণতন্ত্র ধ্বংসের জন্যে উঠেপড়ে লেগেছেন। তারা আরও বলেন, এই দুইজন কে সরকার গঠন করবে তা নিয়ে লড়াইয়ে নেমেছে।

এদিকে করোনাভাইরাসের মাঝে এই বিক্ষোভে অংশগ্রহণকারীরা কঠোরভাবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নিয়ম মেনে চলেছেন। তাদের প্রত্যেকের মুখে মাস্ক ছিল এবং হাতে ছিল কালো পতাকা। প্রত্যেক বিক্ষোভকারী একে অপরের থেকে অন্তত ছয় ফুট দূরত্বে দাঁড়িয়ে বিক্ষোভ করেছেন।

উল্লেখ্য, ইসরায়েলে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ১৩ হাজার ৬৫৪ জন। এদের মাঝে মৃত্যুবরণ করেছে ১৭৩ জন। সুস্থ হয়ে ফিরেছে ৩ হাজার ৮৭২ জন। সারাবিশ্বে এখন পর্যন্ত ২৪ লাখেরও বেশি মানুষ মারণ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। মৃত্যুবরণ করেছে ১ লাখ ৬৫ হাজারের উপরে মানুষ।

সূত্র- হারের্টজ।

Check Also

Government has not taken any decision to hold HSC exams’

HSC and equivalent examinations were supposed to start from April 1. Due to the Corona …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *