Shops are opening with the risk of corona infection

Many people have started opening their businesses and shops with the opportunity to relax in the hotel restaurant lock down. These people have gone out to work at the risk of corona infection. Like the last few days, there were still private cars and small vehicles on the road. Law enforcement officials say their main job is to ensure social distance between people, given the government’s laxity.

LIKE OUR FACEBOOK PAGE

হোটেল রেস্তোরাঁয় লক ডাউনের শিথিলতার সুযোগ নিয়ে অনেকেই খুলতে শুরু করেছেন তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, দোকানপাট। করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি নিয়েই কাজে যোগ দিতে বের হয়েছেন এসব মানুষ। গত কয়েকদিনের মতো আজও রাস্তায় ছিল ব্যক্তিগত গাড়ি ও ছোট ছোট যানবাহন। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা বলছেন সরকারের এমন শিথিলতায়, মানুষের মধ্যে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করাই তাদের প্রধান কাজ।

নিয়মিত চাকরির আপডেট পেতে আমাদের গ্রুপে জয়েন করুন

ইমামের মতো অনেক ব্যবসায়ীই লকডাউন মানছেন না। ভাগ্যের ওপর নিজেকে ছেড়ে দিয়ে কাজে যোগ দিয়েছেন এমন অনেকেই।রাস্তায় গণপরিবহন নাইতো কি হয়েছে। ছোট ছোট গাড়িতে চাপাচাপি করেই ছুটছেন যে যার গন্তব্যে। ভিড় বেড়েছে রাজধানীর ইফতার বিক্রির দোকানগুলোতেও। যেখানে মানাও হচ্ছে না সামাজিক-শারীরিক দূরত্ব।

নিয়মিত চাকরির আপডেট পেতে আমাদের গ্রুপে জয়েন করুন

একটি কিংবা দুটি জায়গায় শিথিলতার সুযোগ নিচ্ছেন কেউ কেউ। সেখানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীও যেন অসহায়। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে মানুষকে জনসমাগম এড়িয়ে চলার কথাই বলছেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘরে থাকতেই পরামর্শ দিচ্ছেন তারা।
পি

Check Also

In the second phase, 10 more pairs of trains were launched

দ্বিতীয় ধাপে আরো ১০ জোড়া ট্রেন চালু     Join our Facebook Group

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *