One month in jail for transporting passengers in freight vehicles

On Saturday, Bangladesh Road Transport (BRTA) Director (Engineering) Lokman Hossain Mollah issued the circular at the request of the local DC and police. In this circular, it has been said that this legal action will be taken as per section 102 of the Road Transport Act 2016. It further said that the government has banned public transport till May 5 and banned passenger transport in freight vehicles to prevent the transmission of coronavirus.

LIKE OUR FACEBOOK PAGE

পণ্যবাহী পরিবহনে যাত্রী পরিবহন করলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করলে এক মাসের কারাদণ্ড বা দশ হাজার টাকা জরিমানা অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হতে হবে।

নিয়মিত চাকরির আপডেট পেতে আমাদের গ্রুপে জয়েন করুন

 

শনিবার বাংলাদেশ সড়ক পরিবহনের (বিআরটিএ) পরিচালক (ইঞ্জিনিয়ারিং) লোকমান হোসেন মোল্লা স্থানীয় ডিসি ও পুলিশকে অনুরোধ করে ওই প্রজ্ঞাপন জারি করেন।

এ প্রজ্ঞাপনে সড়ক পরিবহন আইনের ২০১৮ সালের ১০২ নম্বর ধারা অনুযায়ী এই আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলা হয়েছে।

এতে আরো বলা হয়েছে, সরকার করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে ৫মে পর্যন্ত গণপরিবহন বন্ধ রাখাসহ পণ্যবাহী যানবাহনে যাত্রী পরিবহন নিষিদ্ধ করেছে। এ অবস্থায় কোনো কোনো পণ্যবাহী যানবাহনে যাত্রী পরিবহন করা হচ্ছে। সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ এর ১০২ ধারা অনুযায়ী তা শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

এমতাবস্থায় পণ্যবাহী যানবাহনে যাত্রী পরিবহন রোধকল্পে স্থানীয় জেলা প্রশাসন ও পুলিশ বিভাগকে এ বিষয় প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করা হলো।

তবে প্রজ্ঞাপনে জরুরি পরিষেবাসমূহ, খাদ্যদ্রব্য, নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য, জ্বালানি, ওষুধ, ওষুধশিল্প ও চিকিৎসা বিষয়ক সামগ্রী পরিবহন, কৃষিপণ্য, সার ও কীটনাশক, মৎস্য এবং প্রাণিসম্পদ খাতের দুগ্ধ ও দুগ্ধজাত পণ্য, শিশুখাদ্য, জীবনধারণের মৌলিক উপাদান উৎপাদন ও পরিবহন, গণমাধ্যম ও ত্রাণবাহী পরিবহন এ নিষেধাজ্ঞার আওতামুক্ত থাকবে বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

আইনে যা রয়েছে

নিয়মিত চাকরির আপডেট পেতে আমাদের গ্রুপে জয়েন করুন

সড়ক পরিবহন আইনের ২০১৮ সালের ১০২ ধারায় বলা হয়েছে, ‘যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ১১৮ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, তাহা হইলে উক্ত লঙ্ঘন হইবে একটি অপরাধ, এবং তজ্জন্য তিনি অনধিক ১ (এক) মাসের কারাদণ্ড, বা অনধিক ১০ (দশ) হাজার টাকা অর্থদণ্ড, বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হইবেন।’

সড়ক পরিবহন আইনের ২০১৮ সালের ১১৮ ধারায় (১) বলা হয়েছে, ‘ যদি কোনো ব্যক্তি, চালক, শ্রমিক, মোটরযানের মালিক বা প্রতিষ্ঠান বা তাহাদের প্রতিনিধিকে এই আইনের অধীন কোনো তথ্য প্রদান বা অন্য কোনো কার্য করিবার নির্দেশ প্রদান করা হয়, তাহা হইলে উক্ত ব্যক্তি, চালক, শ্রমিক, মোটরযানের মালিক বা প্রতিষ্ঠান বা তাহাদের প্রতিনিধি উক্তরূপ নির্দেশ প্রতিপালনে বাধ্য থাকিবে।’

১১৮ (২) ধারায় বলা হয়েছে, ‘কোনো ব্যক্তি, চালক, শ্রমিক, মোটরযানের মালিক বা প্রতিষ্ঠান বা তাহাদের প্রতিনিধি উপ-ধারা (১) এর অধীন প্রদত্ত কোনো নির্দেশ অমান্য করিতে বা উহা বাস্তবায়নে বাধা প্রদান করিতে বা যাচিত তথ্য প্রদানে অস্বীকৃতি জ্ঞাপন করিতে বা উদ্দেশ্যমূলকভাবে ভুল তথ্য পরিবেশন করিতে পারিবেন না।’

সময়ের কনঠস্বর/

Check Also

Government has not taken any decision to hold HSC exams’

HSC and equivalent examinations were supposed to start from April 1. Due to the Corona …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *