Name of relatives in the list of rice distributed for the destitute!

 

The president of the ward Awami League in Ulipur, Kurigram, has been accused of irregularities in compiling the list of beneficiaries of the special OMS allotted for the helpless and destitute. The leader has listed 13 of his relatives, including widows and disabled beneficiaries. When the matter came to light, there was a storm of discussion and criticism among the locals. The incident took place in the Nizai farm area of ​​Ward No. 1 of Ulipur Municipality.

LIKE OUR FACEBOOK PAGE

দুস্থদের জন্য বরাদ্দকৃত চাল বিতরণের তালিকায় স্বজনদের নাম

দুস্থদের জন্য বরাদ্দকৃত চাল বিতরণের তালিকায় স্বজনদের নাম

কুড়িগ্রামের উলিপুরে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতির বিরুদ্ধে অসহায় ও দুস্থদের জন্য বরাদ্দকৃত বিশেষ ওএমএস এর উপকারভোগীর তালিকা প্রণয়নে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। ওই নেতা তার ১৩ জন আত্মীয়সহ বিধবা ও প্রতিবন্ধী ভাতাপ্রাপ্ত ব্যক্তির নাম তালিকাভুক্ত করেছেন। বিষয়টি জানাজানি হলে এলাকাবাসীর মধ্যে নানা আলোচনা ও সমালোচনার ঝড় ওঠে। ঘটনাটি ঘটেছে উলিপুর পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ড নিজাই খামার এলাকায়।

জানা গেছে, করোনাভাইরাসে কর্মহীন হয়ে পড়া দেশের জেলা সদর পৌরসভা ও জেলা সদর বর্হিভূত পৌরসভার মানুষজনকে বিশেষ ওএমএস (১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রয়ের লক্ষে) এর আওতায় আনার জন্য তালিকা তৈরির নির্দেশনা দেয় সরকার। এই নির্দেশনার পাওয়ার পরপরই স্থানীয় রাজনৈতিক নেতাদের সাথে সমন্বয় করে তালিকা তৈরির কাজ শুরু করেন প্রশাসন।

এ সময় পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডে ২০৭ জন হতদরিদ্রের তালিকা তৈরিতে সহায়তা করেন ওই ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের সভাপতি শফিকুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক জিয়াদুল ইসলাম। এ যোগে ওয়ার্ড সভাপতি শফিকুল ইসলাম তালিকায় তার স্বজনদের নাম অন্তর্ভূক্ত করেন।

তার তৈরিকৃত তালিকায় ১নং ক্রমিকে রয়েছেন বেয়াই আমিন মন্ডল, ৮৭ নং এ ভাই সিরাজুল ইসলাম, ৮নং এ ভাবি নাজমা বেগম, ৯০ নং এ ভাতিজা নাজমুল হুদা,৭ নং এ চাচা আবু তালেব, ৯২ নং এ চাচী শেফালি বেগম, ৬নং এ চাচাতো ভাই আ. হাই, ৯ নং এ চাচা আবু তাহের, ১০ নং এ চাচাতো ভাই হযরত আলী, ১১ নং এ চাচাতো ভাই সাহেব আলী, ১৭ নং এ চাচাতো ভাই মহসিন, ২১ নং এ আবু তাহের, ৯৭ নং এ ভাতিজা রানু মিয়ার নাম তালিকায় অন্তর্ভূক্ত করেন। 

এ ছাড়া সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচিসহ সরকারের অন্যান্য সুবিধাভোগীরা এই তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হওয়ার নিয়ম না থাকলেও ওই ওয়ার্ড সভাপতি তার দেওয়া তালিকায় ২নং ক্রমিকে থাকা ফজলুল হক, ৪নং এ মালেকা বেগম ও ৫নং এ সাহেব আলীর পরিবারের সদস্যদের নামে বিধবা ও প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড থাকার পরেও তাদের নাম অন্তর্ভুক্ত করেন। পরে বিষয়টি জানাজানি হলে স্থানীয় লোকজনের মাঝে বিরুপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়।

নিয়মিত চাকরির আপডেট পেতে আমাদের গ্রুপে জয়েন করুন

এ বিষয়ে উলিপুর পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি শফিকুল ইসলাম বলেন, যারা প্রকৃত অস্বচ্ছল তালিকায় তাদের নাম দেওয়া হয়েছে। তবে তিনি স্বীকার করেন, আত্মীয়-স্বজনের মধ্যে ধনী মানুষের নাম দেওয়া হয়নি। গরিব মানুষের নাম দেওয়া হয়েছে। সরকারের দেওয়া অন্যান্য সুবিধাভোগীদের নামের বিষয় জানতে চাইলে তিনি বলেন, কোনো ত্রুটি থাকলে তা সংশোধন করা হবে। 

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ও ১নং ওয়ার্ডের দায়িত্ব প্রাপ্ত ট্যাগ অফিসার আ. রব বলেন, ওই ওয়ার্ডে কে কার আত্মীয় তা আমি জানি না। তবে তালিকা তৈরির সময় তারা আমার সঙ্গে ছিলেন। যেহেতু আমি এ এলাকার লোক নই, তাই সবাইকে চিনি না। 

বিশেষ ওএমএস এর বরাদ্দ কমিটির সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আব্দুল কাদের তালিকায় অনিয়মের বিষয়ে মৌখিক অভিযোগ পাওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, বিষয়টি তদন্তের জন্য উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রককে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

Check Also

Corona’s second push is not a holiday or a lockdown

Even if the incidence of corona increases in the coming winter, the country will not …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *